উত্তরবঙ্গ

উপ নির্বাচনের আগে আবারও উত্তপ্ত দিনহাটা। গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত দুই, গুরুতর আহত পাঁচ।

কোচবিহার, ১০ অক্টোবরঃ উপ নির্বাচনের আগে আবারও উত্তপ্ত হয়ে উঠলো কোচবিহার জেলার দিনহাটা মহকুমা। বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি চালানোর ঘটনা ঘটলো দিনহাটা মহকুমার গীতলদহে। ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু হয়েছে দুই জনের। সংঘর্ষে গুরুত আহত আরও পাঁচ জন। রবিবার রাতে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। মৃতদের নাম মোজাফফর হোসেন এবং আব্দুল মান্নান হক। আহতরা হলেন, দুলাল মিয়া, মিন্টু হক, দিলদার হুসেন, আবাইদুল হক এবং জাহাঙ্গির আলম।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, রবিবার রাতে মোজাফফর হোসেন এবং তার পরিবারের সদস্যরা বাড়ির বাইরে বসে ছিলেন। সেই সময় কয়েকজন দুষ্কৃতি হঠাৎই এসে তাদেরকে লক্ষ্য করে এলোপাথাড়ি গুলি চালায়। গুলিবিদ্ধ মোজাফফর হোসেনকে প্রথমে দিনহাটা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে তাকে কোচবিহার এমজেএন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানেই মৃত্যু হয় তার। অন্যদিকে, গুলিবিদ্ধ আব্দুল মান্নান হক-কে দিনহাটা মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে, চিকিৎসকেরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। আহতদের মধ্যে ডান হাতে জাহাঙ্গির আলমের ডান হাতে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপয়া দুষ্কৃতিরা।

মৃত মোজাফফর হোসেনের পরিবারের দাবি, বিজেপি আশ্রিত দুস্কৃতিরা গুলি চালিয়ে পালিয়ে যায়। মৃতের পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, শনিবার রাতে গীতলদহ সংলগ্ন ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতিদের বেশ কয়েকটি গরু ধরা পড়ে। তৃণমূল কর্মী মোজাফফর হোসেন বিএসএফকে খবর দিয়ে এই ঘটনা ঘটিয়েছে বলে ধরে নিয়েই, বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতিরা তাঁদের লক্ষ্য করে গুলি চালায় বলে অনুমান মৃত মোজাফফর হোসেনের পরিবারের।

অন্যদিকে, বিজেপির পক্ষ থেকে এই ঘটনার পেছনে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দকেই দায়ী করা হয়েছে। তবে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব এই ঘটনার পেছনে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দের তত্ত্ব খারিজ করেছেন। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।